সুদান থেকে সরিয়ে নেওয়া হল মার্কিন নাগরিকদের

সুদান থেকে মার্কিন কূটনীতিক ও তাদের পারিবারের সদস্যদের সরিয়ে নিয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী। সুদানের আধা-সামরিক বাহিনী র‌্যাপিড সাপোর্ট ফোর্সেস- আরএসএফ রোববার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। খবর রয়টার্সের। দেশটির সেনাবাহিনী ও আধা-সামরিক বাহিনী আরএসএফের ক্ষমতার দ্বন্দ্ব-সংঘাতের মধ্যে এক মার্কিন নাগরিক নিহত হওয়ার পর শনিবার তাদের সব কূটনীতিক ও পরিবারের সদস্যদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আরএসএফের সহযোগিতায় ৬টি মার্কিন বিমানে করে দেশটির কূটনীতিকরা সুদান ছাড়েন। এ ছাড়াও অন্য দেশের নাগরিকরা শনিবার রাজধানী খার্তুম থেকে ৬০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত লোহিত সাগরের একটি বন্দর দিয়ে সুদান ছেড়েছেন। সৌদি আরবের সহযোগিতায় লোহিত সাগরের বন্দর দিয়ে সুদান থেকে পালাচ্ছেন মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের মানুষ। উল্লেখ্য, সুদানে গত ১৫ এপ্রিল থেকে সেনাবাহিনী এবং প্যারা-মিলিটারি বাহিনী আরএসএফ মধ্যে লড়াই চলছে।রাজধানী খার্তুমের পরিস্থিতি এখন সবচেয়ে ভয়াবহ। সুদানে ক্ষমতা ভাগাভাগি করে সরকার চালাচ্ছিলেন সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহান, যিনি কার্যত দেশটির নেতা এবং আরএসএফের প্রধান মোহাম্মদ হামদান দাগালু, যিনি ছিলেন উপ-নেতা। কিন্তু এই দুইজনের ক্ষমতার দ্বন্দ্বে দুই বাহিনীর মধ্যে লড়াই শুরু হয়েছে। এ পর্যন্ত ক্ষমতার এই লড়াইয়ে কমপক্ষ্যে ৪১৩ জন নিহত এবং সাড়ে ৩ হাজার মানুষ আহত হয়েছেন।