মৌলভীবাজারে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক:-মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা আফতাব আলী ওরফে চিনু মিয়া (৫০)কে গ্রেফতার করেছে কুলাউড়া থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে অভিযুক্ত পিতা চিনু মিয়াকে তার বসতবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।
 ২৫ এপ্রিল মঙ্গলবার  সকালে ভিকটিমের নানী মোছাঃ রেজিয়া বেগম থানায় এসে আফতাব আলী ওরফে চিনু মিয়ার বিরুদ্ধে ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণের
অভিযোগ করেন।
ভিকটিম (১২) কুলাউড়া উপজেলার  গিয়াসনগর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় পড়ালেখা করে। ভিকটিমের মা আয়েশা বেগম সৌদি আরব প্রবাসী। বিগত দেড় মাস পূর্বে আয়েশা বেগম প্রবাসে যান। ভিকটিমের মা প্রবাসে যাওয়ার পর থেকে ভিকটিমের পিতা আফতাব আলী ওরফে চিনু মিয়া (৫০) তার ০২ মেয়ে ও ০১ ছেলে সন্তানকে নিয়ে বাড়ীতে থাকেন।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়,  গত ২২ এপ্রিল রাত অনুমান সাড়ে ১২ ঘটিকায় ভিকটিম রাতের খাওয়া দাওয়া শেষ করে তার পিতা অভিযুক্ত আফতাব আলী  চিনু মিয়ার সাথে বসত ঘরের পশ্চিম পাশের ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। সেদিন রাত অনুমান ০১টা মিনিট ভিকটিম ঘুমিয়ে থাকাবস্থায় পাষণ্ড পিতা আফতাব আলী ওরফে চিনু মিয়া তার মেয়ের মুখে চাপ দিয়ে ধরে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ ঘটনা যাতে কেউ জানতে না পারে সেজন্য ঘটনার পর থেকে ভিকটিমকে অভিযুক্ত ধর্ষক পিতা চিনু মিয়া ঘরে আটকে রাখে।
পরবর্তীতে গত ২৪ এপ্রিল ভিকটিম লস্করপুর সাকিনস্থ তার নানার বাড়ীতে গিয়ে ঘটনার বিষয়ে জানায়। ভিকটিমের নানী বিষয়টি কুলাউড়া থানা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ ভিকটিমকে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ভিকটিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ভিকটিম তার পিতা কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে জবানবন্দি প্রদান করে।
কুলাউড়া থানা পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে  অভিযুক্ত ধর্ষক আফতাব আলী ওরফে চিনু মিয়াকে গিয়াসনগর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানায় একটি  মামলা দায়ের  করা হয়েছে যার নং (২৭)।