মেসির জন্মদিন আজ

ফুটবল বিশ্বে অনন্য এক নাম লিওনেল মেসি। যার ফুটবল শৈলীতে মুগ্ধ গোটা বিশ্ব, সেই লিওনেল মেসির আজ ৩৬তম জন্মদিন। বিশ্বকাপ জয়ের পরে এটাই লিওনেল মেসির প্রথম জন্মদিন। তাই এবারের জন্মদিনটা মেসির কাছে খুব বেশি স্পেশাল। এবার পিএসজি ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিতে চলেছেন মেসি। চলতি মাস শেষেই পিএসজির সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে আর্জেন্টাইন অধিনায়কের। তারপরই নতুন ক্লাবে যোগ দিবেন তিনি। আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে ১৯৮৭ সালের ২৪ জুন জন্মগ্রহণ করেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবল তারকা। জর্জ মেসি ও সেলিয়া কুচেত্তিনির সংসারের তৃতীয় সন্তান লিওনেল মেসি। মেসির ছোটবেলা স্বাভাবিক শিশুদের মতো ছিল না। দৈহিক অস্বাভাবিকতা ধরা পড়ে খুব ছোট বয়সেই। ১১ বছর বয়সে মেসির শরীরে গ্রোথ হরমোন জনিত জটিলতা দেখা দেয়। কিন্তু তার বাবা মায়ের সেই রোগের চিকিৎসা করার মতো সামর্থ্য ছিল না। এই চিকিৎসার খরচ ছিল প্রতিমাসে প্রায় ৯০০ ডলার। সেই চিকিৎসার জন্যই বার্সেলোনায় চলে যায় মেসি ও তার পরিবার। মেসিরা ২০০০ সালে কাতালান শহরটিতে যান। যুব দল পেরিয়ে ২০০৪ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে নাম লেখান বার্সেলোনার সিনিয়র দলে। মেসির জন্মদিনে ভক্তেরা শুভেচ্ছার বন্যা ভাসিয়ে দিচ্ছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে মেসিকে নিয়ে বহু পোস্ট দেখা যাচ্ছে। বার্সেলোনায় যোগদানের পর টানা ২ দশক ধরে পুরো ফুটবল বিশ্বকে নিজের জাদুতে মাতিয়ে রাখেন এই আর্জেন্টাইন ফুটবল তারকা। নিজের ক্লাব ফুটবল কেরিয়ারে বার্সেলোনার হয়ে ৭৭৮টি ম্যাচে ৬৭২ গোল আর পিএসজির হয়ে ৭৫ ম্যাচে ৩২ গোল করেছেন মেসি। অপরদিকে, আন্তর্জাতিক ফুটবল ক্যারিয়ারে ১৭৫ ম্যাচে পর্যন্ত ১০৩ গোল করেছেন। ক্লাব ও আন্তর্জাতিক ম্যাচ মিলিয়ে ১০২৮ ম্যাচে এখনও ৮০৭ গোল করেছেন মেসি। বার্সেলোনার হয়ে মেসি ক্লাবের ইতিহাসে সর্বাধিক ৩৫টি ট্রফি জিতেছেন। তার মধ্যে ১০টি লা লিগা, ৮ স্প্যানিশ সুপার কাপ, ৭টি কোপা দেল রে, ৪টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ৩টি ক্লাব বিশ্বকাপ, ইউরোপিয়ান সুপার কাপ ৩টি। পিএসজির হয়ে ফরাসি লিগ ওয়ান সহ ৩টি ট্রফি জিতেছেন মেসি। ২০২১ সালে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে মেসির আন্তর্জাতিক ট্রফি জয়ের স্বপ্নপূরণ হয়েছিল। সেবার প্রথম কোপা আমেরিকা জিতেছিলেন মেসি। এরপর ২০২২ সালে ফিনালিসিমা। অবশেষে ২০২২ সালে কাতার বিশ্বকাপ জিতে নিজের সবথেকে বড় স্বপ্নটা পূরণ করেন তিনি। বিশ্বজয়ী হওয়ার পর প্রথম জন্মদিন পালন করছেন মেসি। এবারের জন্মদিনটা মেসির কাছে তাই খুব স্পেশাল। তবে জন্মদিনের আগে পিএসজি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন মেসি। লিও জানিয়েছেন তিনি কেন পিএসজি ছাড়লেন। তিনি বলেছেন, ‘আমি প্যারিসে এসেছিলাম কারণ ক্লাবটিকে আমি ভালোবাসি। এই ক্লাবের ড্রেসিংরুমে আমার পরিচিত অনেকে ছিল, যারা আমার বন্ধু। আমি ভেবেছিলাম ক্লাবটিতে মানিয়ে নেয়া আমার জন্য সহজ হবে। এজন্য অনেক সুযোগ ছেড়ে এখানে এসেছিলাম। কিন্তু দুই বছর পরে আমি দেখলাম এটি সহজ নয়।’