বাবা-ছেলের শয্যাসঙ্গী সেলিনা, যা বললেন অভিনেত্রী

বলিউড অভিনেত্রী সেলিনা জেটলি। ২০০১ সালে ‘জানশীন’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় তার। এ সিনেমায় তার বিপরীতে অভিনয় করেন ফারদিন খান। সিনেমাটি পরিচালনা করেন ফারদিনের বাবা ফিরোজ খান। এতে সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করে নজর কাড়েন এই অভিনেত্রী। এরপর কেটে গেছে দুই দশকের বেশি সময়। দীর্ঘ দিন পর ফারদিন-ফিরোজ ও সেলিনাকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন চলচ্চিত্র সমালোচক উমের সান্ধু। টুইটে উমের সান্ধু লিখেন, ‘সেলিনা ভারতের একমাত্র অভিনেত্রী, যে বাবা (ফিরোজ খান) এবং ছেলে (ফারদিন খান) দু’জনেরই শয্যাসঙ্গিনী।’ টুইটে নজর এড়ায়নি সেলিনার। এমন ‘অশালীন’ টুইটের বিরুদ্ধে ফুঁসে ওঠেছেন ‘নো এন্ট্রি’ সিনেমার এই অভিনেত্রী। ফারদিন খান ও ফিরোজ খান পাল্টা টুইটে সেলিনা লিখেন, ‘মিস্টার সান্ধু, এই টুইট পোস্ট করায় আপনি হয়তো পুরুষ হওয়ার দৌড়ে দৈর্ঘ্য ও পরিধিতে বেড়েছেন, আপনার হয়তো একটু আশাও বেড়েছে যে আপনার যৌন অক্ষমতা সেরে উঠবে। বিশ্বাস করুন সেরে ওঠার আরো উপায় রয়েছে। চাইলে আপনি চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন, দয়া করে সময় নিয়ে নিজের চিকিৎসা করিয়ে নেবেন!’ উমের সান্ধুর এমন টুইটের পাল্টা জবাব দেওয়ায় সেলিনার প্রশংসা করেছেন নেজিনেদের একাংশ। অনেকে উমের সান্ধুর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়েরের পরামর্শ দিয়েছেন। তবে সমালোচনাও কম হচ্ছে না। সেলিনা জেটলি অভিনয় ক্যারিয়ারে বেশ কিছু সফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন। কিন্তু ক্যারিয়ারের মাঝ পথে আকস্মিকভাবে বিয়ে করেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া। তারপর অভিনয় থেকে দূরে রয়েছেন ৪১ বছর বয়সী এই নায়িকা।