সোশ্যাল মিডিয়া থেকে কাজলের বিরতি

বলিউড অভিনেত্রী কাজল সোশ্যাল মিডিয়া অর্থাৎ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে বিরতি নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। পাশাপাশি আগের সব পোস্টও মুছে দিলেন। টুইটার এবং ইনস্টাগ্রামে একটি কালো ব্যাকগ্রাউন্ডের উপর সাদা অক্ষরে বিষয়টি জানিয়েছেন অভিনেত্রী নিজেই। এ প্রসঙ্গে কাজল লিখেছেন, জীবনের কঠিনতম পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। এর চেয়ে বেশি কিছু উল্লেখ করেননি তিনি। এতে যদিও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনুরাগীরা, সব ঠিক আছে তো? কেউ আবার ভাবছেন, পারিবারিক সমস্যা। এমন কল্পনা-জল্পনায় নেটদুনিয়া সবর। কাজল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বরাবরই সক্রিয়। দৈনন্দিন জীবনের খুঁটিনাটি বিভিন্ন বিষয় ভাগ করে নেন সেখানেই। পোস্ট করেন স্বামী অজয় দেবগন, কন্যা নিসা কিংবা পুত্র যুগকে নিয়েও। হঠাৎ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ছেড়ে কাজলের চলে যাওয়ার সিদ্ধান্তে চমকে গেছেন ভক্ত-অনুরাগীরা। কাজলের রহস্যাবৃত পোস্টে কেউ মন্তব্য করেন, সময় নিন। খারাপ সময় আসে আবার চলেও যায়। আবার কেউ লিখলেন, আপনি যথেষ্ট শক্তিশালী। ঝড়ঝাপটা সামলে নিতে পারবেন। গত সপ্তাহেই নিজের অভিনীত সিনেমা ‘দুশমন’-এর ২৫ বছর উপলক্ষে পোস্ট করেছিলেন কাজল। তাতে শুভেচ্ছায় ভরিয়েছিলেন সতীর্থরা। ১৯৯২ সালে ‘বেখুদি’ সিনেমায় বলিউডে পা রেখেছিলেন কাজল। তার পরিবারের সদস্যরাও সিনেমার জগতের নামকরা তারকা। কাজলের মা তনুজা, মাসি নূতন ইন্ডাস্ট্রির আলোচিত মুখ। কাজলের বাবা সোমু মুখোপাধ্যায়ও ছিলেন পরিচালক এবং প্রযোজক। কাজলের ছোট বোন তানিশাও অভিনয়ে এসেছেন। ব্যক্তিগত জীবনে অভিনেত্রী এখন কী ধরনের সমস্যায় আছেন তা স্পষ্ট নয়। তবে হাতে একগুচ্ছ কাজ। আগামী দিনে কাজলকে দেখা যাবে ‘লাস্ট স্টোরিজ-২’ সিরিজে। কাজলের সর্বশেষ অভিনীত সিনেমা ‘সালাম ভেঙ্কি’। তবে ভক্ত-অনুরাগীরা আশা করছেন তাদের প্রিয় তারকা কাজল শিগগির আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় সবর হবেন।