আ.লীগ খেলা শুরু করেছে, তত্ত্বাবধায়ক ছাড়া নির্বাচন হবে না : ফখরুল

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগ ‘নির্বাচন নির্বাচন খেলা’ শুরু করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা ছাড়া কোনো দলীয় সরকারের অধীনে আর নির্বাচন হবে না। ১৪-১৮ সালে ভোট দিতে পারেনি জনগণ। সামনের নির্বাচন নিয়েও ‘নির্বাচন নির্বাচন খেলা’ খেলতে চাচ্ছে আওয়ামী লীগ। শুক্রবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক বিক্ষোভ মিছিলের আগে বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দ্রব্যমূল্য কমানো, সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল। মগবাজার মোড়ে এসে শেষ হয় বিক্ষোভ মিছিল। মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে। সুচিন্তিতভাবে সাধারণ মানুষের সব অধিকার কেড়ে নিয়েছে। শ্রমিকরা ন্যায্যমূল্য পায় না অথচ আওয়ামী লীগের নেতারা বিদেশে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করছে। বিএনপি মহাসচিব বলেন, সমগ্র জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে নির্বাচন দিতে হবে। ‘আন্দোলন শুরু হয়েছে, শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে এসেছে। আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করাসহ সব দাবি আদায় করা হবে।’ এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম, আমান উল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু প্রমুখ।