মৌলভীবাজারে গরীব মেধাবীদের মাঝে  ‘অন্বেষা’ শিক্ষা বৃত্তি ও সার্টিফিকেট বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক।।‘আলোকিত মানুষের প্রত্যাশায়’ এই শ্লোগান নিয়ে ২০২২ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় মৌলভীবাজার জেলার জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের প্রেরণা ও উৎসাহ প্রদানসহ গরীব মেধাবীদের মধ্যে এককালীন শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।
বুধবার দুপুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে ‘অন্বেষা’ মৌলভীবাজারের আয়োজনে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বৃত্তির নগদ টাকা, সম্মাননা ক্রেস্ট ও সাটিফিকেট বিতরণ করেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ  নেছার আহমদ।
অন্বেষা মৌলভীবাজারের সভাপতি মোসাহিদ আহমদ চুন্নুর সভাপতিত্বে ও রজত কান্তি গোস্বামীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) সুর্দশন কুমার রায়, উপজেলা পরিষদ চেয়াম্যান কামাল হোসেন, মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ঠ সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্বাবধায়ক ডা. বিনেন্দু ভৌমিক, অন্বেষা মৌলভীবাজারের সহ-সভাপতি ও দ্বারিকা পাল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক, মাওলানা মোফাজ্জল হোসেন ডিগ্রী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইকবাল, অন্বেষা মৌলভীবাজারের প্রধান সমন্বয়ক, বিশিষ্ঠ সমাজসেবক ও কার্ডিফের কমিউনিটি লিডার মোহাম্মদ মকিস মনসুর। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অন্বেষা মৌলভীবাজারের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হৃষিকেশ দাশ পিন্টু।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৌলভীবাজার-রাজনগর ৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ এমপি বলেন, আমি প্রথমেই ধন্যবাদ দেই অন্বেষার সকল কর্মকর্তাদেরকে, ২০০৮ সাল থেকে আজ পর্যন্ত তাঁরা এই প্রক্রিয়াটি ধরে রেখেছে এবং প্রতি বৎসরই সেটা বর্ধিত হচ্ছে।
তিনি আরও বলেন,  যারা বিদেশে আমাদের আত্মীয়-স্বজন আমাদের এলাকাবাসি স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে আরম্ভ করে আমাদের এই দেশে প্রতিটি দূর্যোগে তাঁরা ঝাপিয়ে পড়ে আমাদেরকে সহযোগীতা করেন। ঠিক তেমনিভাবে তাঁরা চান আমাদের ছেলে-মেয়েরা এগিয়ে যাক লেখা-পড়াতে।
তিনি বলেন, বিশ্বের দরবারে একটি মেধাবী দেশ হিসাবে এই দেশের ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষিত জাতি হিসাবে এই দেশ পরিচিত করবে। প্রবাসীরা আমাদের সাহায্য-সহযোগীতা করে বিভিন্নভাবে। আজকে অন্বেষা ফান্ডিংকে তাঁরা সহযোগীতা করে এবং অন্বেষাসহ এই মৌলভীবাজারে আরও কিছু সংগঠন আছে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহীত করার জন্য প্রবাসীরা সব জায়গাতে ফান্ডিং করেন এবং সহযোগীতা করেন। এসময় তিনি মৌলভীবাজারবাসির পক্ষ থেকে প্রবাসীদের ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানান।
অনুষ্ঠানে গরীব ও মেধাবী ১২ জন শিক্ষার্থীকে নগদ তিন হাজার টাকা করে দেয়া হয়। এছাড়া ২০২২ সালে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৭৮ জন এসএসসি শিক্ষার্থী ও  এইচএসসি উত্তির্ণ ৭৮জন শিক্ষার্থীকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সাটিফিকেট প্রদান করা হয়।